হাটহাজারীতে এবার কেন্দ্র দখল ভোট জালিয়াতি করার সুযোগ নেই-ব্যারিস্টার আনিস

শেয়ার করুন

হাটহাজারী প্রতিনিধি: পুরোদমে চলছে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম ৫ হাটহাজারী আসনের প্রার্থী সাবেক সাংসদ ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদের নির্বাচনী প্রচারণা।

সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) সকাল থেকে তিনি উপজেলার নাঙ্গলমোড়া ও ছিপাতলী ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায়  নাঙ্গল মার্কায় ভোট চেয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালান।

উপজেলার নাঙ্গলমোড়া ইউনিয়নের জমিয়তুলফালা, ইব্রাহিম মার্কেট, কাউন্যারহাট বাজার, নাঙ্গলমোড়া মাদ্রাসা, দক্ষিণ নাঙ্গলমোড়া, নাকখালী এবং ছিপাতলী ইউনিয়নের ইসলামামিয়ারহাট বাজার, আলমের কুম, বোয়ালিয়ার মুখ, গাউসিয়া মাদ্রাসা, লাল মোহাম্মদ বাড়ী, ঈদগাহ স্কুল, কাজিরখীল, ইত্যাদি এলাকায় জনসংযোগ করেন। পরে বিকালের দিকে ওই ইউপির নাকখালী এলাকায় একটি নির্বাচনী অফিস উদ্বোধন করেন তিনি।

প্রচারণাকালে নাঙ্গল মার্কার সমর্থনে আয়োজিত পথ সভায় তিনি বলেন, আমি ৬ বার এই হাটহাজারী থেকে নির্বাচন করেছি। এবার সপ্তম বারের মতো আবারও আপনাদের কাছে এসেছি।  আমি কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই এজন্য যে আমি যখনই আপনাদের কাছে এসেছি তখনই আপনারা আমাকে সাদরে গ্রহণ করেছেন।  হাটহাজারীতে খুন, রাহাজানি নেই বললেই চলে। মানুষ এখন তাদের জীবনের নিশ্চয়তা নিয়ে বসবাস করছেন। হাটহাজারী এখন উন্নয়নের রুল মডেলে পরিণত হয়েছে। আমি হাটহাজারীর প্রত্যন্ত এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়ন করেছি। হাটহাজারী উপজেলার প্রত্যেক বিদ্যালয়ে নতুন ভবন করে দিয়ে শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নকল্পে কাজ করেছি। এছাড়া হাটহাজারী থেকে প্রায় ৫০০ ছেলে মেয়ে কে চাকরি দিয়েছি।

সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী সাবেক সাংসদ ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ আরও বলেন, এবার বাংলাদেশে একটি দৃষ্টান্তমুলক নির্বাচন হবে। এই নির্বাচনে মানুষ তার ভোটের অধিকার যাতে প্রয়োগ করতে পারে সে ব্যবস্থা করা হবে। এবার কোন ভোট ছিনতাই, ভোট জালিয়াতি, ভোট কেন্দ্র দখল এগুলো করতে দেব না। আমরা জাতিকে একটি সুন্দর, নিরপেক্ষ, গ্রহণযোগ্য নির্বাচন উপহার দেব।

এসময় তাঁর সাথে ছিলেন নাঙ্গলমোড়া ও ছিপাতলী ইউ পি চেয়ারম্যান যথাক্রমে হারুন অর রশীদ, নূরুল আহসান লাভু, আকবর হায়দর চৌধুরী, সৈয়দ মনজুরুল আলমসহ ইউ পি সদস্য সদস্যাবৃন্দ, জাতীয় পার্টি ও আওয়ামীলীগের অনেক নেতাকর্মী এবং ওই এলাকার গন্যমান্যব্যক্তিবর্গগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

Scroll to Top