‘স্বপ্নের রাস্তাটি পূর্ণতা পেলে আর ভাড়া বাসা নিয়ে থাকতে হবে না’

শেয়ার করুন

উখিয়া প্রতিনিধি: কক্সবাজারের উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের তিন গ্রাম- দৌছড়ি, চেংখোলা ও মালিয়ারকুল।

উপজেলা সদর থেকে অদূরের এই গ্রামগুলোর প্রায় ৫ হাজার বাসিন্দার দুঃখ হয়েছিলো একটি সড়ক। বর্ষা এলেই সড়ক না থাকায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যেতো এলাকাটি, বাড়তো বাসিন্দাদের ভোগান্তি। দীর্ঘদিনের দাবীর প্রেক্ষিতে অবশেষে কাঙ্ক্ষিত সেই সড়ক আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) সকালে, রাজাপালং ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড’স্থ হাজীরপাড়া জামে মসজিদ থেকে ৩নং ওয়ার্ডের দৌছড়ি জামে মসজিদ পর্যন্ত কার্পেটিং সড়ক নির্মাণ ও সংস্কারের কাজ উদ্বোধন করা হয়।

এলজিইডি উখিয়ার তত্ত্বাবধানে ও রাজাপালং ইউনিয়ন পরিষদের সহযোগিতা নির্মাণ করা হচ্ছে দুই কিলোমিটার দীর্ঘ এই সড়ক।

এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে উদ্বোধনের সময় রাজাপালং ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বলেন, “রাজাপালং ইউনিয়ন এখন আর প্রান্তিক জনপদ নেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের ছোঁয়া পৌঁছে গেছে এখানকার প্রতিটি প্রান্তরে। এই এলাকার মানুষেরা এখন যাতায়াত নিয়ে আর কষ্ট পাবে না।”

সড়কের বেহালদশার কারণে উখিয়া সদর সহ অনত্র থাকতেন এই এলাকার বাসিন্দারা।  কাজ শুরু হওয়ায় তাদের মাঝে বিরাজ করছে স্বস্তি।

স্থানীয় তরুণ সংবাদকর্মী সালাউদ্দিন আকাশ বলেন, “স্বপ্নের রাস্তাটি পূর্ণতা পেলে ভাড়া বাসা নিয়ে উখিয়া থাকতে হবে না, মা-বাবার সাথে বাড়িতে থাকতে পারবো। বিদ্যুৎ পেয়েছি এবার সড়কটি পেলে স্বপ্ন পূরণ হবে।”

Scroll to Top