মিতু হত্যা: বাবুল আক্তারকে পাঠানো হলো ফেনী কারাগারে

শেয়ার করুন

চাটগাঁ নিউজ ডেস্কঃ চট্টগ্রামে বহুল আলোচিত মিতু হত্যা মামলায় প্রধান আসামি তারই স্বামী সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ফেনী জেলা কারাগারে স্থানান্তর করা হয়েছে। বুধবার (৩১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে তাকে সেখানে পাঠানো হয়।

এই ঘটনায় চট্টগ্রামের সিনিয়র জেল সুপার মুহাম্মদ মঞ্জুর হোসেন জানান, বাবুল আক্তারকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ফেনী কারাগারে স্থানান্তরের বিশেষ কোনো কারণ নেই। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তাকে সেখানে স্থানান্তর করা হয়েছে।

সাড়ে তিন বছর তদন্ত করেও ডিবি পুলিশ কোনো কূলকিনারা করতে না পারার পর অবশেষে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে আদালতের নির্দেশে মামলার তদন্তভার পায় পিবিআই। এরপর ২০২১ সালের মে মাসে পিবিআই জানায়, স্ত্রী মিতুকে হত্যা করা হয়েছিল বাবুল আক্তারের পরিকল্পনায়। আর এজন্য খুনিদের লোক মারফত তিন লাখ টাকাও দিয়েছিলেন বাবুল। ২০২১ সালের ১২ মে বাবুল আক্তারকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করে পিবিআই। সেই থেকে কারাগারে রয়েছেন তিনি। বর্তমানে তৃতীয় অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ জসিম উদ্দিনের আদালতে বাবুলের বিরুদ্ধে স্ত্রী খুনের মামলা বিচারাধীন।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে চট্টগ্রাম নগরের জিইসি মোড়ে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় তৎকালীন চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মিতুকে গুলি চালিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়। বাবুল ওই ঘটনার কিছুদিন আগে চট্টগ্রাম থেকে বদলি হন। তিনি ঢাকায় কর্মস্থলে যোগ দিতে যাওয়ার পরপরই এ হত্যাকাণ্ড ঘটে।

চাটগাঁ নিউজ/এসবিএন

Scroll to Top