মাদকের মামলায় মাইক্রোবাস চালকের যাবজ্জীবন

শেয়ার করুন

চাটগাঁ নিউজ ডেস্ক : এক যুগ আগে ৫৪০ বোতল ফেনসিডিলসহ গ্রেপ্তারের ঘটনায় এক মাইক্রোবাস চালককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

চট্টগ্রামের চতুর্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক শরীফুল আলম ভূঁঞা সোমবার এই রায় দেন।

দণ্ডিত আসাদুজ্জামান বাপ্পি (৪০) কুমিল্লা জেলার কোতোয়ালি থানার কাটাবিল গ্রামের শফিকুর রহমান মাস্টারের ছেলে। ঘটনার সময় গ্রেপ্তার হলেও তিনি পরে জামিনে বেরিয়ে পালিয়ে যান।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. ওমর ফুয়াদ বলেন, মাদকের মামলায় ৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য প্রমাণে আসামি আসাদুজ্জামান বাপ্পী বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় যাবজ্জীব কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন। রায়ের সময় আসামি আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা মূলে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১২ সালের ৪ জুলাই রাতে নগরীর কোতোয়ালি থানার পুরাতন স্টেশনের পশ্চিম পাশে অভিযান চালায় র‌্যাব। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে একটি মাইক্রোবাস থেকে নেমে দৌড়ে পালানোর সময় চালক আসাদুজ্জামান বাপ্পিকে আটক করা হয়। আটকের পর মাইক্রোবাসে তল্লাশি চালিয়ে তিনটি চটের বস্তা থেকে ৫৪০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

ওই ঘটনায় র‌্যাব-৭ এর সে সময়ের ডিএডি কাজী মিজানুর রহমান বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। তদন্ত শেষে ২০১২ সালের ৯ অগাস্ট বাপ্পির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। ২০১৩ সালের ২২ মে অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে আদালত তার বিচার শুরু করে। রাষ্ট্রপক্ষে ৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে সোমবার বাপ্পিকে দোষী সাব্যস্ত করে রায় দিল আদালত।

চাটগাঁ নিউজ/এসএ

Scroll to Top