বৈদ্যুতিক গাড়ি বিক্রিতে চীনের বিওয়াইডি ছাড়িয়ে গেল টেসলাকে

শেয়ার করুন

চাটগাঁ নিউজ ডেস্ক : চীনা কোম্পানি বিওয়াইডি ২০২৩ সালের শেষ তিন মাসে ইলন মাস্কের টেসলার চেয়ে বেশি বৈদ্যুতিক গাড়ি বিক্রি করেছে। তবে গোটা ২০২৩ সালের হিসাবে মাস্কের টেসলার বিক্রি বেশি।

বিওয়াইডি জানিয়েছে, ২০২৩ সালের শেষ প্রান্তিকে তারা ৫ লাখ ২৬ হাজার ব্যাটারিচালিত গাড়ি বিক্রি করেছে।

মঙ্গলবার টেসলা জানিয়েছে, ২০২৩ সালের শেষ তিন মাসে তারা রেকর্ড ৪ লাখ ৮৪ হাজার ৫০০ বৈদ্যুতিক গাড়ি সরবরাহ করেছে এবং পুরো বছরে ১০ লাখ ৮০ হাজার গাড়ি সরবরাহ করেছে।

বছরের শেষের টেসলার ব্যবসা বিশ্লেষকদের প্রত্যাশার চেয়ে ভালো হয়েছে। বছরের শেষে ২০২২ সালের একই সময়ের তুলনায় ২০ শতাংশ বেশি বিক্রি হয়েছে। এ ছাড়া ২০২৩ সালের শুরুর তুলনায় গতিও বেড়েছে।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গাড়ি রপ্তানিতে চীন এরই মধ্যে জাপানকে ছাড়িয়ে গেছে। অর্থাৎ এখন বিশ্বের সবচেয়ে বেশি গাড়ি রপ্তানিকারক দেশ চীন। বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহৎ অর্থনীতির এই দেশ এখন নানা সমস্যায় জর্জরিত; তবে এর মধ্যে গাড়িশিল্প অন্ধকারে আলো দেখাচ্ছে।

২০২৪ সালের জন্য অর্থনৈতিক পূর্বাভাসে দ্য ইকোনমিস্ট বলেছে, নতুন বছরে বৈশ্বিক গাড়িশিল্পে ধীরগতি দেখা যাবে। এ বছর গাড়ি বিক্রি প্রাক্‌-মহামারি পর্যায়ে ফিরতে পারবে না। নতুন ব্যক্তিগত গাড়ি বিক্রির পরিমাণ বাড়বে ৩ শতাংশ, বাণিজ্যিক গাড়ি বিক্রিতে প্রবৃদ্ধি হবে মাত্র ১ শতাংশ। তবে কার্বন নিঃসরণ নিয়ে দেশে দেশে আইন আরও কঠোর হওয়ার কারণে বৈদ্যুতিক গাড়ি বিক্রি বাড়বে। এ খাতে প্রবৃদ্ধি হবে ২৫ শতাংশ। এই গাড়ির বাজার এখনো অতটা লাভজনক নয়, সে জন্য তাদের সরকারি ভর্তুকির ওপর নির্ভর করতে হবে।

বিশ্বের অধিকাংশ দেশ জীবাশ্ম জ্বালানির ওপর নির্ভরতা কমাতে বৈদ্যুতিক গাড়িতে জোর দিচ্ছে। সারা পৃথিবীতেই জীবাশ্ম জ্বালানিনির্ভর গাড়ি থেকে বৈদ্যুতিক গাড়িতে উত্তরণ ঘটছে। কিন্তু এ প্রক্রিয়া অতটা সহজ হচ্ছে না। অবকাঠামোর অপ্রতুলতা ও সার্বিকভাবে ক্রেতাদের আকর্ষণ করার সহায়ক পরিবেশ কতটা তৈরি হয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। দেশে দেশে সরকারকে এই খাতে বড় অঙ্কের ভর্তুকি দিতে হচ্ছে।

চাটগাঁ নিউজি/এসএ

Scroll to Top