নির্মলেন্দু গুণের কবিতা থেকে ‘নয়া মানুষ’

শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: বাংলাদেশ ও বাংলা ভাষার অন্যতম প্রধান কবি নির্মলেন্দু গুণ এর ‘বাংলার মাটি বাংলার জল’ কাব্যগ্রন্থের ‘পুরো মানুষের গান’ কবিতা থেকে তৈরি হলো গান। এর শিরোনাম ‘মানুষ’।

গানটি ব্যবহার করা হবে ‘নয়া মানুষ’ চলচ্চিত্রে।

বেলাল খানের সুর ও কণ্ঠে গানটির সঙ্গীত আয়োজন করেছেন শোভন রয়।

গানটি নিয়ে কবি কবি নির্মলেন্দু গুণ বলেন, এই কঠিন কবিতার বাণীকে সুরের শিকলে বাঁধা কঠিন। এই কঠিন কাজটি করার জন্য সুরকার,কণ্ঠশিল্পী ও চলচ্চিত্রটির নির্মাতাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাই। গানটি আমার খুবই ভালো লেগেছে।

গানটির সুরকার ও কন্ঠশিল্পী বেলাল খান বলেন, কবিতাকে গানে রূপ দেওয়া বেশ চ্যালেঞ্জিং ছিল আমার জন্য। তবে আমি খুব আনন্দিত এই কারণে যে, কবি নির্মলেন্দু গুণের কবিতা দিয়ে অদ্ভুত সুন্দর একটা সুর তৈরি করতে পেরেছি এবং আমি পুরোপুরি তৃপ্ত। আমার বিশ্বাস এই গানটি মানুষ অনেকদিন মনে রাখবে।

‘নয়া মানুষ’র নির্মাতা বয়াতি বলেন, কবি ও চলচ্চিত্র নির্মাতা মাসুদ পথিক দাদার সঙ্গে কাজ করার সুবাদে কবি নির্মলেন্দু  গুণ দাদার সঙ্গে মেশার সুযোগ পাই। একদিন তাকে জানালাম আমার প্রথম চলচ্চিত্রের জন্য গানের কথা প্রয়োজন, বিষয়বস্তু জেনে  দাদা ‘পুরো মানুষের গান’ কবিতাটি আমাকে দেন। তিনি আমাকে বলেন, ‘প্রথম দুটি স্তবক থেকে গানটা করতে পারো, খুব ভালো হবে তোমার সিনেমার থিম সং। ’ বর্তমান বাংলা সাহিত্যের অন্যতম এই কবি যে ভালোবাসা ‘নয়া মানুষ’ চলচ্চিত্রকে দিলেন তা আমাদের টিমকে সাহস ও অনুপ্রেরণা দিয়েছে।

আ. মা. ম. হাসানুজ্জামানের ‘বেদনার বালু চরে’ উপন্যাস অবলম্বনে মাসুম রেজা’র চিত্রনাট্যে সোহেল রানা বয়াতির প্রথম চলচ্চিত্র ‘নয়া মানুষ’। ইতোমধ্যেই এর চিত্রধারণের কাজ শেষ হয়েছে।

কমল চন্দ্র দাসের চিত্রগ্রহণে নির্মানাধীন চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করছেন রওনক হাসান, মৌসুমী হামিদ, আশীষ খন্দকার, ঝুনা চোধুরী, নিলুফার ওয়াহিদ, বদরুদ্দোজা, স্মরণ সাহা, শিখা কর্মকার, মাহিন রহমান, মেহারান সানজানা, পারভীন পারু, মেরি ও শিশু শিল্পী ঊষসী।

 

Scroll to Top