নিখোঁজ নারীর সন্ধান মিলেছে অজগরের পেটে!

শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নিখোঁজ নারীর মরদেহ পাওয়া গেল অজগরের পেটে। ঘটনাটি ঘটেছে ইন্দোনেশিয়ার জাম্বি প্রদেশে। জাহরাহ নামে ৫০ বছর বয়সী ওই নারী গত রোববার সকালে তার রাবার বাগানে কাজ করতে গিয়ে নিখোঁজ হন। সেই রাতে তিনি ফিরে না আসায় তাকে খুঁজতে মাঠে নামে অনুসন্ধানকারী দল। কিন্তু তাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

শনিবার স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, একদিন পর গ্রামের লোকজন একটি অজগরকে দেখতে পান। তাদের সন্দেহ হয়। তারা সাপটিকে মেরে ফেলেন। পরে অজগরের পেটের ভেতর থেকে ওই নারীর মরদেহ বের করেন। বেতারা জাম্বি পুলিশ প্রধান একেপি এস হারেফা স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ওই নিখোঁজ নারীকে সাপের পেটে পাওয়া গেছে। তবে তার মৃতদেহটি অনেকাংশে অক্ষত ছিল। তিনি বলেন, নিহতের স্বামী রোববার রাতে রাবার বাগানে তার ব্যবহৃত কিছু জামাকাপড় এবং সরঞ্জাম খুঁজে পেয়েছিলেন। পরে তিনি একটি অনুসন্ধানকারী দলকে ডাকেন।

তিনি আরও জানান, সাপটি কমপক্ষে ৫ মিটার (১৬ ফুট) দীর্ঘ ছিল। সোমবার এলাকার লোকজন এটিকে ধরার পর মেরে ফেলে। তারা সাপের পেট কাটার পর দেখেন যে জাহরাহ’র মরদেহ ভেতরে রয়েছে। এ ধরনের ঘটনা বিরল। তবে ইন্দোনেশিয়ায় এটি প্রথম নয়। ২০১৭ ও ২০১৮ সালেও একই ভাবে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়।

সংশ্লিষ্ট একজন বিশেষজ্ঞ এর আগে বিবিসিকে বলেছিলেন যে অজগর সাধারণত ইঁদুর এবং অন্যান্য প্রাণী খায়। অজগর তাদের খাবার পুরোটাই গিলে খায়। তাদের চোয়ালগুলো খুব নমনীয় লিগামেন্ট দ্বারা সংযুক্ত থাকে যাতে তারা বড় শিকারের চারপাশে প্রসারিত করতে পারে। সিঙ্গাপুরের বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও গবেষণা কর্মকর্তা মেরি-রুথ লো বলেন, মূলত তারা তাদের শিকারের মতো বড় হতে পারে। শূকর এমনকি গরুর মতো বড় প্রাণীও খেতে পারে অজগর। সূত্র : বিবিসি।

চাটগাঁ নিউজ/এসআইএস

Scroll to Top