ভিসির পদত্যাগ দাবিতে কর্মবিরতিতে চবি শিক্ষক সমিতি

শেয়ার করুন

চাটগাঁ নিউজ ডেস্ক : উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে এবার কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) থেকে বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত কর্মবিরতি ঘোষণা করা হয়।

রোববার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকালে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এই ঘোষণা দেয় সমিতি।

প্রশাসনের বিভিন্ন অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার প্রতিবাদে গত বছর ১৮ ডিসেম্বর উপাচার্য শিরীণ আখতার এবং উপ-উপাচার্য বেনু কুমার দের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলনে নামে শিক্ষক সমিতি। এরই ধারাবাহিকতায় এবার কর্মবিরতির সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

রোববার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের এস রহমান হলে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন চবি শিক্ষক সমিতির নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নানা অনিয়ম-দুর্নীতির বিষয় তুলে ধরে লিখিত বক্তব্যে শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হক বলেন, ‘উপাচার্য ও উপউপাচার্য পদত্যাগ না করা পর্যন্ত শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে চবি প্রশাসনিক ভবনের সামনে চলমান প্রশাসনের নানান অগ্রহণযোগ্য কার্যক্রমবিষয়ক সংবাদ প্রদর্শনী চলতে থাকবে। পাশাপাশি সোমবার ও মঙ্গলবার (৫-৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত এবং বুধবার ও বৃহস্পতিবার (৭-৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে চবি শিক্ষক সমিতি সর্বাত্মক কর্মবিরতি (পরীক্ষা আওতামুক্ত) ঘোষণা করছে।’

‘তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান পরীক্ষা এই কর্মবিরতি আওতামুক্ত থাকবে। পরবর্তীতে অতিরিক্ত ক্লাস নিয়ে সম্ভাব্য ক্ষতি পুষিয়ে দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করব আমরা।’

এআব্দুল হক বলেন, ‘আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে আন্দোলন করছি। তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষককে কর্মবিরতির আহ্বান করা হয়েছে। আর আমরা আশা করছি এরকম ন্যায়সঙ্গত আন্দোলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল সাধারণ শিক্ষক এগিয়ে আসবেন।’

সংবাদ সম্মেলনে চবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি মুস্তাফিজুর রহমান সিদ্দিকী, সহসভাপতি মো. আলা উদ্দিন, কোষাধ্যক্ষ আলী আরশাদ চৌধুরী, সদস্য লায়লা খালেদা ও মো. শেখ সাদী উপস্থিত ছিলেন।

চাটগাঁ নিউজ/এসএ

Scroll to Top