চবি’র শিক্ষার্থীদের মারধর করল স্থানীয়রা, সড়ক অবরোধ

শেয়ার করুন

চাটগাঁ নিউজ ডেস্ক : পূর্ব ঘটনার জের ধরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ১নং গেইট ও রেলক্রসিং এলাকায় সড়ক অবরোধ করেছে স্থানীয়রা। এসময় তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীকে আটক করে মারধরের ঘটনা ঘটে। এতে ১ নং গেইট থেকে হাটহাজারী ও বিশ্ববিদ্যালয় জিরো পয়েন্টে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) জুমার নামাজের পর এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দুই শিক্ষার্থীর আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক আটকে দিয়েছে ছাত্রলীগের উপগ্রুপ সিএফসি।

এর আগে ১নং গেইট এলাকায় টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে স্থানীয়রা।

আহতরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের ২০১৮-১৯ সেশনের শাহাদাত হোসেন ও মায়েশা নামের দুজন শিক্ষার্থী।

আন্দোলকারীরা জানিয়েছেন, গত মঙ্গলবারের ঘটনায় হাটহাজারী থানায় মামলা করতে গেলে মামলা গ্রহণ করেনি। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তদন্ত কমিটি করলেও তার রিপোর্ট এখনও দেয়নি। জড়িত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধেও কোনো ব্যবস্থা এখনও নেয়া হয়নি। তাই তারা এর প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করেছে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত স্থানীয়দের এ আন্দোলন চলমান রয়েছে। এছাড়াও মারধরের খবর ছড়িয়ে পড়ার পর শিক্ষার্থীদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

গত মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ২নং গেইটে মোটরসাইকেল নিয়ে যাওয়ার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রের মোটরসাইকেলের সঙ্গে ধাক্কা লাগে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারী ও ফতেপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বখতিয়ার উদ্দিনের। এঘটনায় বখতিয়ার ও ছাত্রের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। ঘটনাস্থলে উপস্থিত বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রলীগকর্মীর সঙ্গেও বখতিয়ারের কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় ছাত্রলীগ কর্মীর সঙ্গে বখতিয়ারের হাতাহাতির একপর্যায়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে আহত হয় ৩ জন। এ ঘটনার জের ধরেই শিক্ষার্থীদের মারধর করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

চাটগাঁ নিউজ/এসএ

Scroll to Top