চট্টগ্রাম নগরীতে চালু হচ্ছে পর্যটক বাস

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রথমবারের মতো পর্যটক বাস পেতে যাচ্ছে দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রাম। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় চট্টগ্রামের সবচেয়ে জনপ্রিয় পর্যটন স্পট পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত ও অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করে নবনির্মিত ডিসি পার্ককে ঘিরে চলবে এই পর্যটক বাস।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) সহযোগিতায় নতুন এই পর্যটক বাসের ব্যবস্থাপনায় থাকছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন। আগামী ১০ জুন পর্যটকদের জন্য নতুন এই বাস সেবার উদ্বোধন করবেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী।

প্রথমিক পর্যায়ে বিআরটিসির দুটি দ্বিতল বাসকে পর্যটক বাস হিসেবে তৈরি করা হচ্ছে। এর মধ্যে পর্যটকদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে একটি ছাদখোলা বাসও রাখা হয়েছে।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, নগরীর টাইগারপাস থেকে ফৌজদারহাট ডিসি পার্ক হয়ে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে চলাচল করবে পর্যটক বাস দুটি। ছুটির দিনগুলোর মধ্যে শুক্রবার তিনবার ও শনিবার চারবার চলাচলের কথা রয়েছে। তবে ছুটির দিনের বাইরে রোববার থেকে বৃহস্পতিবার দিনে দুবার টাইগার পাস থেকে ডিসি পার্ক হয়ে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে আসা-যাওয়া করবে নতুন এই পরিবহন।

প্রতিদিন বিকেল ৩টা ও ৪টায় নগরীর টাইগার পাস থেকে ডিসি পার্ক হয়ে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের পথে যাত্রা করবে পর্যটক বাস। সন্ধ্যা ৭টা ও রাত ৮টায় শহরে ফিরবে বাস দুটি। তবে ছুটির দিনগুলোতে বিকেলের পাশাপাশি সকালেও চলাচল করবে এই দুই বাস।

প্রতি শুক্রবার সকাল ৯টায় টাইগার পাস থেকে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে যাত্রা করে বেলা ১২টায় একই বাসে ফেরা যাবে শহরে। অন্যদিকে শনিবার সকাল সাড়ে ৯টা ও সাড়ে ১০টায় দুবার টাইগার পাস থেকে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবে পর্যটক বাস। বাস দুটো পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত থেকে টাইগার পাসের উদ্দেশে ফিরতি যাত্রা করবে বেলা ১২টা ও দুপুর ১টায়।

প্রতিটি বাসে চালকের সহকারীর কাছ থেকে টিকিট সংগ্রহ করে পর্যটক বাসে ভ্রমণ করতে পারবেন যে কেউ। নাগালের মধ্যেই রাখা হয়েছে পর্যটক বাসের ভাড়া। শহরের অন্যান্য গণপরিবহনের মতো যেখানে সেখানে ওঠানামা করতে পারবেন না এই বাসের যাত্রীরা। তবে টাইগার পাস থেকে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে যাওয়ার ক্ষেত্রে নগরীর জিইসি মোড় ও ২ নম্বর গেট এলাকা থেকেও তৎক্ষণাৎ টিকেট কেটে পর্যটক বাসে ভ্রমণ করতে পারবেন।

চট্টগ্রাম অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (ভূমি অধিগ্রহণ) মো. আবু রায়হান দোলন বলেন, ‘টিকিটের জন্য এখনো কোনো কাউন্টার রাখা হয়নি। সরাসরি চালকের সহকারীর কাছে টিকেট পাওয়া যাবে। সমুদ্র সৈকতে যাওয়ার সময় জিইসি ও ২ নম্বর গেট এলাকা থেকেও চাইলে পর্যটকরা টিকিট কেটে বাসে উঠতে পারবেন। তবে গণপরিবহনের মতো যেখানে সেখানে নামতে পারবে না কেউ।’

এই বাসে টাইগার পাস থেকে সরাসরি পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের ভাড়া ৭০ টাকা। তবে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত থেকে টাইগার পাসে ফিরতি পথের ভাড়া ধরা হয়েছে মাত্র ৩০ টাকা।

এদিকে টাইগার পাস থেকে ডিসি পার্ক যাওয়ার টিকিট রাখা হয়েছে ৪০ টাকা। ডিসি পার্ক থেকে টাইগার পাসে ফিরতি পথেও গুনতে হবে একই ভাড়া। আর ৩০ টাকার টিকিটে ডিসি পার্ক থেকে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে যেতে পারবেন পর্যটকরা। তবে ফিরতি পথে পর্যটকদের গুনতে হবে ৭০ টাকা।

বন্দরনগরী চট্টগ্রামের পর্যটন সম্ভাবনার কথা মাথায় রেখে পর্যটকদের আকৃষ্ট করতেই এ উদ্যোগের কথা জানিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা। জেলা প্রশাসনের জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার জামসেদ আলম রানা বলেন, ‘আপাতত দুটি বাস দিয়ে শুরু করা হচ্ছে। পর্যটকদের সাড়া পাওয়া গেলে বাস সংখ্যা বাড়ানো হবে। ১০ জুন সকাল ১০টায় সার্কিট হাউজে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও বেলা ১২টায় পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে বাস চলাচলের উদ্বোধন হবে।’

পরে বাসের সংখ্যা বাড়লে টিকিট কাউন্টার স্থাপনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে জানান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (ভূমি) মো. আবু রায়হান দোলন।

Scroll to Top