চট্টগ্রামেও শুরু হলো বইমেলা, প্রথম দিনেই জমজমাট

শেয়ার করুন

চাটগাঁ নিউজ ডেস্ক: নগরীর ফুসফুসখ্যাত সিআরবিতে শুরু হয়েছে অমর একুশে বইমেলা। প্রথম দিন বিকেল থেকেই মেলায় ভিড় জমাতে শুরু করে নানা বয়সী মানুষ। বইমেলা মঞ্চে চলছিল একের পর এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। যদিও কিছু স্টলে নির্মাণকাজ এখনো শেষ হয়নি।

শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে বইমেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন চসিক মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী। বইমেলা চলবে ২ মার্চ পর্যন্ত। প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা এবং ছুটির দিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা খোলা থাকবে।

মেলায় প্রতিদিন আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান থাকছে। এছাড়া প্রতিবারের মত এবারও জাতীয় জীবনে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য একুশে সম্মাননা স্মারক পদক ও সাহিত্য পুরস্কার দেওয়া হবে।

জানা গেছে, এবারের বইমেলায় ঢাকা ও চট্টগ্রামের ৯২টি প্রকাশনা সংস্থার ১৫৫টি স্টল রয়েছে। মেলার বাজেট ধরা হয়েছে ৫০ লাখ টাকা।

৪৩ হাজার বর্গফুটের বইমেলায় বাতিঘর, প্রথমা, অন্যধারা, সাহিত্য বিচিত্রা, মূর্ধন্য, লাবণ্য, তৃতীয় চোখ, আবির প্রকাশন, গলুই, বলাকা, খড়িমাটি, শব্দশিল্প, কাকলী, কালধারা, বিদ্যানন্দ, কথাপ্রকাশ, নন্দন, শৈলী প্রকাশন, বলাকা, ইতিহাসের খসড়া, রাদিয়া, চন্দ্রবিন্দু, গল্পকার, প্রজ্ঞালোক, নালন্দা, শিশুপ্রকাশ, প্রতীক, আদিগন্ত, ভোরের কাগজ প্রকাশন, শিখা, সত্যয়ন, নন্দন, শালিক, কথাবিচিত্রা, কথা প্রকাশ, আফসার ব্রাদার্স, বাবুই, গাজী, কিডস পাবলিকেশন, হাওলাদার, ফুলঝুড়ি, নাগরী, ফুলকি, জ্ঞানকোষ, কিংবদন্তি, প্রথমা, দ্বিমত, সালফি, ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেড, মাইজভাণ্ডারী প্রকাশন, আলোকধারা বুকস, লাল সবুজ সহ আরও অনেক প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করছে।

মেলার বাইরে চসিকের তত্ত্বাবধানে এবং নগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহযোগিতায় “ইতিহাস কথা কয়” শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনী স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়া শিশু কর্নারে বিভিন্ন রাইড, মুখরোচক খাবারের স্টল, মৃৎশিল্প সামগ্রীর স্টল ছিল জমজমাট।

চাটগাঁ নিউজ/এসএ/এমআর

Scroll to Top