গাড়ি চুরিতে ওস্তাদ ‘পঙ্গু’ বালি

শেয়ার করুন

চাটগাঁ নিউজ ডেস্ক : লোকটা পঙ্গু। চলাফেরা ভোলাভালা। কিন্তু বোঝার উপায় নেই এই পঙ্গু মানুষটি একজন পেশাদার চোর। পঙ্গুত্বের সুযোগ নিয়ে চোখের পলকেই গাড়ি নিয়ে দেন চম্পট। মুহূর্তেই অনেককে করেছে নি:স্ব। তবে কথায় আছে- চোরের দশ দিন গেরস্তের একদিন। অবশেষে দুটি গাড়িসহ ধরা পড়েছে পেশাদার চোর মো. বালি (৩২)।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) পটিয়া সার্কেল পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহর নেতৃত্বে একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ও একটি টমটমসহ তাকে গ্রেফতার করা হয়।

পরে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে বালি জানান, অনেকদিন ধরে চুরি পেশায় জড়িত। গাড়ি চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য বহুবার আটক করে কাগজপত্র চেয়েছে। তখন তার পঙ্গু পা দেখালে মানবিক কারণে তাকে ছেড়ে দিতো। আর এই সুযোগে  শতাধিক গাড়ি চুরি করেছে বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে সে।

এর আগে গত রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে সরকারি মালামাল বহনকারী একটি অটোরিকশা চুরি হয়। চুরি যাওয়া অটোরিকশা উদ্ধারে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন অটোরিকশার মালিক মো. শুক্কুর। এরপর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পটিয়া থানার একটি চৌকস টিম আসামিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। এই সময় আসামির দেওয়া তথ্যমতে একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ও একটি টমটম উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়, মো. বালি সীতাকুণ্ড থানার ইমামনগর সারেং বাড়ির মৃত মো. রফিকের পুত্র। সে কোন এক দুর্ঘটনায় ডান পায়ের পাতার অংশটুকু হারিয়ে পঙ্গুত্ব বরণ করেন। পায়ের পাতা না থাকার কারণে তাকে সবাই সহানুভূতি দেখাতেন। এই সুযোগে একজন পেশাদার চোর হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলে বালি।

চাটগাঁ নিউজ/এসবিএন/এসএ

Scroll to Top