ওয়ানডে মিশন শুরু আজ

শেয়ার করুন

চট্টগ্রামে আফগানদের বিপক্ষে মাঠে নামবে টাইগাররা

সিপ্লাস ডেস্ক: সবে কোরবানের ঈদ গেল। সে স্মৃতি যেমন একেবারে টাটকা বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের তেমনি ঈদের মাত্র কদিন আগে রেকর্ড গড়ে আফগানদের টেস্ট ম্যাচে হারানোর স্মৃতিটাও একেবারে তরতাজা টাইগারদের। সে সুখ স্মৃতিকে সঙ্গী করে আজ অন্য একটি মিশনে নামছে বাংলাদেশ দল। এবার মিশন ওয়ানডে সিরিজ। যেটি বাংলাদেশের যেমন আধিপত্য ধরে রাখার তেমনি আফগানদের প্রতিশোধ নেওয়ার। জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচটি। আজ খেলা শুরু হবে দুপুর ২টায়।

সিরিজের শুরুতেই এগিয়ে যেতে চায় স্বাগতিক শিবির। টেস্ট ক্রিকেটের তুলনায় ওয়ানডে এবং টি–টোয়েন্টিতে বেশি শক্তিশালী আফগানিস্তান। তার উপর টেস্ট দলে না থাকা রশিদ খানসহ একাধিক ক্রিকেটার ফিরেছেন এই সিরিজে। শুধু তাই নয় আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগে ১৫ ম্যাচের ১১টিতে জিতেছে আফগানরা। যদিও বাংলাদেশের বিপক্ষে তাদের পরিসংখ্যানটা একেবারেই মলিন। দু দলের ১১ মোকাবেলায় ৭ জয় বাংলাদেশের। ৪টি জয় আফগানদের।

দুই দল গত বছর সর্বশেষ মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশের মাটিতে। তিন ম্যাচের সে সিরিজটিও বাংলাদেশ জিতেছিল ২–১ ব্যবধানে। আর ওয়ানডে ভার্সনে বাংলাদেশ এখন বেশ শক্তিশালী দল। তার উপর নিজেদের মাঠে বাংলাদেশকে হারানোটা বেশ কঠিন। সেটা ভালোই জানা আফগানদের। ২০১৫ সালের পর থেকে ঘরের মাঠে বাংলাদেশ মাত্র দুটি ওয়ানডে সিরিজ হেরেছে। আর সে দু’টিই হেরেছে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডের কাছে। ২০১৬ সালের পর এ বছর ইংলিশদের কাছে হেরেছে টাইগাররা। আফগানিস্তানের বিপক্ষে এই সিরিজটি আইসিসি সুপার লিগের অংশ নয়। তবে এই সিরিজে অনেক অর্জন লুকিয়ে আছে টাইগারদের জন্য। আফগানদের বিপক্ষে সিরিজটি ৩–০ ব্যবধানে জিততে পারলে ওয়ানডেতে নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো র‌্যাংকিংয়ের পঞ্চম স্থানে উঠবে বাংলাদেশ। পাশাপাশি প্রথমবারের মতো একশ রেটিং পয়েন্ট অর্জন করবে বাংলাদেশ।

তবে এই সিরিজকে ঘিরে বাংলাদেশের পরিকল্পনার কথা টিম ম্যানেজম্যান্ট পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দিয়েছেন। অধিনায়ক তামিম ইকবাল এখনো পুরোপুরি সুস্থ নন। যদিও তিনি প্রথম ম্যাচে খেলবেন। এরপর ব্যথা অনুভব করলে পরের দুই ম্যাচে নাও খেলতে পারেন। তবে এই সিরিজকে ঘিরে বাংলাদেশের ভবনাটা অন্য রকম। আর তা হচ্ছে বিশ্বকাপের জন্য একটি সেরা কম্বিনেশন তৈরি করা। কারণ এই উপমহাদেশের মাটিতে হচ্ছে এবারের ওয়ানডে বিশ্বকাপ। তাই একাধিক ক্রিকেটারকে এই সিরিজে বাজিয়ে দেখতে চায় বাংলাদেশ। যদিও এই সিরিজ ছাড়াও বিশ্বকাপ দল তৈরিতে সামনে এশিয়া কাপকে পাচ্ছে বাংলাদেশ। পাশাপাশি রয়েছে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজও। তবে দলের চিন্তায় আপাতত এই তিনটি ম্যাচ। যেখানে বাংলাদেশ জয় ছাড়া অন্য কোন বিকল্প ভাবছে না। দলের কোচ এবং অধিনায়ক দু জনেরই কন্ঠে সিরিজ জয়ের প্রত্যয়।

অপরদিকে এই ওয়ানডে সিরিজ জিতে টেস্টে হারের ক্ষতে কিছুটা হলেও প্রলেপ দিতে চায় আফগানরা। আর সে জন্য তারা দলে ভিড়িয়েছে বিশ্ব সেরা স্পিনার রশিদ খানকে। একই সাথে দলে ফিরেছেন পেসার ফজল হক ফারুকী এবং ব্যাটার আজমত উল্লাহ ওমরজাই। আর এই দল নিয়ে বাংলাদেশকে হারাতে বেশ আশাবাদি আফগান অধিনায়ক হাশমতউল্লাহ শহিদী। তিনি বলেন, আমরা এখানে জিততে এসেছি। দলে ফিরেছেন সেরা তারকা রশিদ খান।

রশিদ আমাদের জন্য অনেক বড় কিছু। তিনি দলে থাকায় অধিনায়ক হিসেবে আমি অত্যন্ত আত্মবিশ্বাসী। আমি জানি দলের জন্য তিনি সেরাটা দিবেন। আর রশিদ খান সেরাটা দেওয়া মানে বাংলাদেশের জন্য কঠিন পরিস্থিতি তৈরি হওয়া। তবে বাংলাদেশ সে সব নিয়ে ভাবছে না। কেবল জয়ই কাজ করছে বাংলাদেশের ভাবনায়।

Scroll to Top