উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আলোচিত সিক্স মার্ডার মামলার আসামি গ্রেফতার

শেয়ার করুন

উখিয়া প্রতিনিধি: কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ‘চাঞ্চল্যকর ৬ খুন’ মামলার এজাহারভুক্ত আসামি ও আরসার শীর্ষ সন্ত্রাসী সাব্বির আহমদ ওরফে লালুকে গ্রেফতার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)।

রোববার (১১ জুন) মধ্যরাতে উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের ময়নারঘোনা ১৮ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এম-১৯ ব্লকে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছেন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিরাপত্তায় নিয়োজিত ৮ এপিবিএনের অধিনায়ক মো. আমির জাফর।

গ্রেফতার সাব্বির আহমদ (৩০) উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের ময়নারঘোনা ১৮ রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ই-ব্লকের আব্দুল মোতালিবের ছেলে।

এপিবিএন জানিয়েছে, সাব্বির আহমদ মিয়ানমারের সশস্ত্র সংগঠন আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) শীর্ষ কমান্ডার। উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সংঘটিত ‘চাঞ্চল্যকর ৬ খুন’ মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। তার বিরুদ্ধে হত্যা, অস্ত্র, মাদক ও চাঁদাবাজিসহ নানা অপরাধে উখিয়া থানায় ৬টির বেশি মামলা রয়েছে।

২০২১ সালের ২২ অক্টোবর রাতে উখিয়া উপজেলার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দারুল উলুম নদওয়াতুল ওলামা আল ইসলামিয়া মাদ্রাসায় দুর্বৃত্তদের সশস্ত্র হামলায় ছয়জন নিহত হন। এ ঘটনার জন্য আরসার সন্ত্রাসীদের দায়ী করে আসছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও রোহিঙ্গারা।

আমির জাফর বলেন, ‘রোববার মধ্যরাতে উখিয়া উপজেলার ময়নারঘোনা ১৮ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এম-১৯ ব্লকের বাসিন্দা হারুনের বসতঘরের সামনে আরসার শীর্ষ সন্ত্রাসী ও একাধিক মামলার পলাতক আসামি সাব্বির আহমদ ওরফে লালুসহ কতিপয় সশস্ত্র লোকজন অবস্থানের খবর পায় এপিবিএন। পরে এপিবিএনের একটি দল অভিযান চালায়। এ সময় এপিবিএন সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে ৪-৫ জন লোক দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। ধাওয়া দিয়ে একজনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় এপিবিএন। পরে তার দেহ তল্লাশি করে পাওয়া যায় একটি ওয়াকিটকি।

গ্রেফতার ব্যক্তির বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে উখিয়া থানায় মামলা করা হয়েছে বলে জানান মো. আমির জাফর।

Scroll to Top