আনোয়ারা ডিএপি সার কারখানার কর্মবিরতি পালিত

শেয়ার করুন

আনোয়ারা প্রতিনিধি : ক্যাজুয়াল শ্রমিক কর্মচারীদের নিয়োগ না দিয়ে অবৈধভাবে নতুন শ্রমিক নিয়োগ দেওয়ায় ও এ নতুন নিয়োগ বন্ধ রাখার দাবীতে কর্মবিরতি পালন করেছেন আনোয়ারা উপজেলার রাঙ্গাদিয়া এলাকায় অবস্থিত ডিএপি ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেডের শ্রমিকরা।

আজ সোমবার (৮ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে সার কারখানার প্রধান গেইটের সামনে অবস্থান নিয়ে এ কর্মবিরতি পালন করেন তারা।

কর্মবিরতি কালে শ্রমিকরা জানান, ২০০৬ থেকে ২৪ সাল পর্যন্ত ডিএপি সার কারখানায় কর্মরত ১৯৭ জন ক্যাজুয়াল কর্মচারীর এখানো নিয়োগ বাস্তবায়ন করা হয়নি। এরমধ্যে কয়েকবার নতুনভাবে শ্রমিক নিয়োগ দেওয়া হলেও ক্যাজুয়াল শ্রমিক কর্মচারীদের নিয়োগ দেওয়া হয়নি। এদিকে আবারো নতুন নিয়োগ দেন কারখানায়। এ নিয়োগ ঠেকাতে ও কারখানার প্রশাসন মহাব্যবস্থাপকের পদ থেকে আবদুল জলিলকে অপসারণের দাবিতে শ্রমিকরা এ কর্মবিরতি করেন।

কর্মবিরতিতে বক্তব্য রাখেন, ক্যাজুয়াল শ্রমিক কর্মচারী কল্যান সমিতির সভাপতি মোঃ শাহজালাল চৌধুরী, কার্যকরী সভাপতি মোঃ সুমন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইসমাইল, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শেখ মহিউদ্দিন, মাঈন উদ্দীন, সাংগঠনিক সম্পাদক মনজুর আলম, অর্থ সম্পাদক সৈয়দুল আলম ও প্রচার সম্পাদক মোঃ পারভেজ সহ আরও অনেক।

ক্যাজুয়াল শ্রমিক কর্মচারী কল্যান সমিতির সভাপতি মোঃ শাহজালাল চৌধুরী জানান, কারখানায় উৎপাদনের জন্য ভূমিকা ক্যাজুয়াল শ্রমিক কর্মচারীদের। কিন্তু এসব শ্রমিকদের নিয়োগ দেওয়া হয়নি। তারমধ্যে কোনো প্রচার ছাড়া অবৈধভাবে শ্রমিক নিয়োগ দেওয়ার জন্য পুলিশের নিরাপত্তার মধ্যে কারখানায় নতুন শ্রমিক নিয়ে আসে৷ এসব নিয়োগের পিছনে হাত রয়েছে কারখানার মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) আব্দুল জলিলের। এতে আমরা সকাল থেকে কর্মবিরতি পালন করি। আমাদের দাবী অবৈধ নিয়োগ বন্ধ ও মহাব্যবস্থাপককে অপসারণ করা। কর্তৃপক্ষ দাবি না মানা পর্যন্ত কর্মবিরতি চলমান থাকবে।

এ বিষয়ে ডিএপি সার কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক বাদল কুমার বণিক জানান, শ্রমিকদের কর্মবিরতি অযৌক্তিক। কারখানায় নতুন ভাবে শ্রমিক নিয়োগ সরকারিভাবে হয়েছে। এখানে অবৈধভাবে নিয়োগ দেওয়া হয়নি। তবে শ্রমিকদের আন্দোলনের বিষয়ে প্রশাসন দেখছে।

চাটগাঁ নিউজ/সাজ্জাদ/এসআইএস

Scroll to Top