সড়কের পাশেই ময়লার ভাগাড়, স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পথচারি

শেয়ার করুন

হাটহাজারী প্রতিনিধি : ফটিকছড়ির নাজিরহাট-কাজিরহাট সড়কের পাশেই যত্রতত্র ফেলা হচ্ছে আবর্জনা। আবর্জনার উৎকট গন্ধে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকবাসীকে। দিনের পর দিন অপরিকল্পিতভাবে এখানে ফেলা হচ্ছে ময়লা-আবর্জনা।

মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নাজিরহাট পৌরসভা ৩নং ওয়ার্ড এলাকার (মন্দাকিনী খালের উত্তর পাশে) সড়ক ঘেঁষে ময়লার স্তুপ। যেখান থেকে বের হচ্ছে দূষিত ধোঁয়া। এতে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী ও পথচারীদের নাক চেপে ধরে হাঁটতে হচ্ছে। যার কারণে ওই এলাকায় আশপাশে বেড়েছে শ্বাসকষ্ট ও ফুসফুসজনিত রোগ।

স্থানীয় ভুক্তভোগীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রায় ১১ বছর ধরে নাজিরহাট পৌরসভার সব ময়লা-আবর্জনা প্রতিনিয়ত এই সড়কের পাশে এনে ফেলছেন পৌরসভার পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা। তারপর একটা সময়ে ময়লার স্তুপে ধরিয়ে দেওয়া হচ্ছে আগুন। এই আগুনের দূষিত ধোঁয়া বাতাসের সাথে মিশে আশেপাশে পুরো এলাকায় ছড়িয়ে পড়ছে।

নাজিরহাট কলেজের প্রভাষক মো. আলমগীর বলেন, কলেজ যাতায়াতে এ সড়ক প্রতিদিন ব্যবহার করতে হয় আমাদের। সড়কের মন্দাকিনী খালের উত্তর পাশে আসলে প্রায় এক কিলোমিটার জায়গা নাক চেপে ধরে আসা-যাওয়া করতে হয়। দুর্গন্ধে পেট ফুলে যায়। অনেকেই শ্বাসকষ্টসহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। এতকিছুর পরেও স্থানীয় পৌর কর্তৃপক্ষের নীরব ভূমিকা দেখে সত্যিই হতাশ হচ্ছি।

এদিকে, এই রাস্তায় দীর্ঘদিন ধরে ময়লার স্তুপ পড়ে থাকার বিষয়ে নাজিরহাট পৌরসভার মেয়র লায়ন জাহেদ চৌধুরীর কাছে জানতে চাইলে তিনি চাটগাঁ নিউজকে বলেন, আমি দায়িত্ব গ্রহণের আগে থেকে ১১বছর ধরে এই স্থানে আবর্জনা ফেলা হচ্ছে। ময়লা ফেলার জন্য সরকারিভাবে কোন জায়গা নির্ধারণ করা নেই। আমরা অন্য একটা ফান্ড থেকে ময়লা ফেলার জন্য জায়গা নেওয়ার চেষ্টা করছি

চাটগাঁ নিউজ/এসবিএন

Scroll to Top