বিএনপি’র অবহেলায় ৯১-এর ঘূর্ণিঝড়ে ব্যাপক মানুষ মরেছে- অর্থ প্রতিমন্ত্রী

শেয়ার করুন

আনোয়ারা প্রতিনিধিঃ তৎকালীন বিএনপি সরকারের অবহেলায় ৯১-এর ঘূর্ণিঝড়ে ব্যাপক হারে মানুষ প্রাণ হারিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খান এমপি।

শনিবার (২৭ এপ্রিল) বিকালে আনোয়ারা উপজেলার উপকূলীয় রায়পুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ৯১ সালে হওয়া শতাব্দীর প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড়ে নিহতদের স্মরণে আয়োজিত স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

এসময় অর্থ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ১৯৯১ সালের প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড়ের পরের দিন তৎকালীন বিএনপি’র প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া তেমন বেশি মানুষ মরেনি বলে মন্তব্য করেছিলেন। ধিক্কার জানাই তার এমন মন্তব্যে। তার মন্তব্যের বিপরীতে আমার নেত্রী শেখ হাসিনা ছুটে এসেছিলেন ত্রাণ নিয়ে। ২৯ এপ্রিল আমরা যাদের হারিয়েছি তাদের অনেক স্বজন এখানে উপস্থিত আছেন। সেই সময় বাতাসে ভাসছিলো মানুষের কান্নার আহাজারি। কিন্তু তৎকালীন সরকার প্রধান তখন ঘুমাচ্ছিল। সরকারের অবহেলায় একরাতে ১লাখ ৩৮হাজার মানুষ প্রাণ হারায়।

প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খান এমপি বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পরে প্রতিটি এলাকায় মুজিব কেল্লা স্থাপন করে মানুষকে নিরাপদে রাখার ব্যবস্থা করেছেন। সিপিডি ঘটন করে মানুষকে নিরাপদে সরানোর ব্যবস্থা করেছেন। আজ সরকারের জলবায়ু বিষয়ক কর্মসূচি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র পর্যন্ত প্রশংসা করছে। আজকে বাংলাদেশে ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলার জন্য আলাদা বাজেট বরাদ্দ করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা চাইনা কারো গাফিলতির জন্য আনোয়ারার মানুষের ক্ষতি হোক। প্রতিহিংসার রাজনীতি আমরা করবো না। আমরা কারো ক্ষতি করবো না। রাজনীতি মানে জনগণের সেবা করা। মানুষের কল্যাণে কাজ করা। আমি বারবার আসব এখানে। রায়পুর ইউনিয়নে কাজ হবে, রায়পুরের মানুষের কাজের জন্য সারা বিশ্ব রায়পুরকে চিনবে।

স্মরণসভা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ফরিদুল কবিরের সভাপতিত্বে এবং ইউপি সদস্য ছৈয়দ নূর ও আলমগীরের যৌথ সঞ্চালনায় উক্ত সভায় বক্তব্য রাখেন- দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আবুল কালাম চৌধুরী, সাবেক স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি ডাক্তার নাছির উদ্দিন মাহমুদ চৌধুরী, আনোয়ারা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি কাজী মোজাম্মেল হক, দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগ নেতা আবুল মনছুর চৌধুরী, মোহাম্মদ আলী, শিকলবাহা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল বশর, মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের বাঙ্গালী, মো. ইউসুফ, নাজিম উদ্দিন সুজন, নজরুল ইসলাম বকুল, ইলিয়াছ বাঙ্গালী, আলমগীর হোসেন, আলী হোসেন, দক্ষিণ জেলা তাঁতি লীগের সহ সভাপতি আজিজুল হক আজিজ, উপজেলা যুবলীগ নেতা মো. মোজাম্মেল, ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক জিয়া উদ্দিন বাবলু ও আবু তৈয়ব রাসেল প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ।

চাটগাঁ নিউজ/এসবিএন

Scroll to Top