বাংলাদেশ সহ বিশ্বের ১৪টি দেশের ভাষায় চলতি বছরের হজ্বের খুতবা

শেয়ার করুন

সৌদি আরব প্রতিনিধি: চলতি বছর ২০২৩, পবিত্র হজ্বে বিশ্বের ১২২টি দেশের ধর্মপ্রাণ মুসল্লীর অংশগ্রহণ শুরু হবে হজ্ব।

এ হজে বাংলাদেশ-সহ বিশ্বের ১৪টি দেশের ভাষায় আরাফাত দিন মসজিদ নামিরা থেকে হজ্বের খুতবা সম্প্রচারিত করবেন দেশটির সরকার।

আগামী আসছে ২৭ জুন ঐতিহাসিক আরাফাত দিবসে মক্কার নামিরাহ মসজিদ থেকে হজের খুতবা শুরু হবে।

এ সময় মূল খুতবা আরবিতে দেওয়া হবে। তবে সৌদি আরবের সরকারি ওয়েবসাইট থেকে লাইভ অনুবাদ সম্প্রচার করা হবে।এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে হারামাইন শরাইফাইন।

খবরে বলা হয়, গতবারের হজেও বিভিন্ন ভাষায় হজের খুতবা সম্প্রচারিত হয়। তার মধ্যে বাংলা ভাষাও ছিল। মোট ১০টি ভাষায় গতবার হজের খুতবা প্রচারিত হয়।

সৌদি আরবের নেতৃত্ব সর্বাধিক সংখ্যক সম্ভাব্য শ্রোতার কাছে সংযম ও সহনশীলতার বার্তা দিতে হজের খুতবা অনুবাদ আকারে সম্প্রচার করা হচ্ছে। এবার তাই মোট ১৪টি ভাষা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

সৌদি আরবের নেতৃত্ব মক্কার মসজিদুল হারাম ও মদিনা মসজিদে নববীর পরিষেবার উন্নয়নে অন্তহীন সহায়তা দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন দুই পবিত্র মসজিদবিষয়ক জেনারেল প্রেসিডেন্সির সভাপতি শাইখ  আবদুর রহমান আল-সুদাইস।

এ বছর ১৪টি ভাষায় খুতবাটি ইংরেজি, ফরাসি, মালয়, উর্দু, ফার্সি, রুশ, চীনা, বাংলা, তুর্কি, হাউসা, স্প্যানিশ, হিন্দি, তামিল এবং সোয়াহিলিতে অনুবাদ আকারে খুতবা সম্প্রচার করা হবে।

আবদুর রহমান আল সুদাইস বলেন, অনুবাদ প্রকল্পটির লক্ষ্য হলো বিশ্বকে ন্যায়পরায়ণতা,ন্যায়বিচার, সহনশীলতা এবং মধ্যপন্থি ইসলামের বার্তা পৌঁছে দেওয়া।

Scroll to Top