বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ভাংচুরে জড়িতদের শাস্তি দাবি মেয়রের

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: নগরের জামালখান মোড়ে সড়কের পাশে দেয়ালজুড়ে থাকা বঙ্গবন্ধুর জীবন-ও কর্মের আলোকচিত্র নিয়ে তৈরি ম্যুরালসহ ৫০টি চিত্রকর্ম ভাংচুরের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন

নগরের জামালখান মোড়ে সড়কের পাশে দেয়ালজুড়ে থাকা বঙ্গবন্ধুর জীবন-ও কর্মের আলোকচিত্র নিয়ে তৈরি ম্যুরালসহ ৫০টি চিত্রকর্ম ভাংচুরের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী ও কাউন্সিলররা।

বিবৃতিতে মেয়র ও কাউন্সিলররা এই ভাংচুরের জন্য বিএনপি ও সহযোগী সংগঠন যুবদল, ছাত্রদলকে দায়ী করেন এবং জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

বৃহস্পতিবার (১৫ জুন) যৌথ বিবৃতিতে মেয়র ও কাউন্সিলররা বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিপ্লবী জীবনের ইতিহাসকে তরুণ প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে জামালখানে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালসহ ট্যাম্পার্ড

গ্লাসে ৫০টি চিত্রকর্ম স্থাপন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন দেশকে উন্নয়নের স্বর্ণশিখরে নিয়ে যাচ্ছেন তখন দুষ্কৃতকারীরা বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ভাংচুরের মাধ্যমে দেশে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টির অপপ্রয়াস চালাচ্ছে।

বঙ্গবন্ধু কেবল কোনো রাজনৈতিক দলের নেতা নন, তিনি আমাদের জাতির পিতা। তার সঙ্গে দেশের স্বাধীনতার অস্তিত্ব জড়িত। মূলত যারা দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না তারাই আমাদের স্বাধীনতার চেতনার উৎস বঙ্গবন্ধুর ম্যূরাল ভাংচুরের মতো ঘৃণ্য কাজ করেছে। জাতির পিতার প্রতি এই অবমাননামূলক ধৃষ্টতার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হোক। ও কাউন্সিলররা।

বিবৃতিতে মেয়র ও কাউন্সিলররা এই ভাংচুরের জন্য বিএনপি ও সহযোগী সংগঠন যুবদল, ছাত্রদলকে দায়ী করেন এবং জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

বৃহস্পতিবার (১৫ জুন) যৌথ বিবৃতিতে মেয়র ও কাউন্সিলররা বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিপ্লবী জীবনের ইতিহাসকে তরুণ প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে জামালখানে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালসহ ট্যাম্পার্ড  গ্লাসে ৫০টি চিত্রকর্ম স্থাপন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন দেশকে উন্নয়নের স্বর্ণশিখরে নিয়ে যাচ্ছেন তখন দুষ্কৃতকারীরা বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ভাংচুরের মাধ্যমে দেশে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টির অপপ্রয়াস চালাচ্ছে।

বঙ্গবন্ধু কেবল কোনো রাজনৈতিক দলের নেতা নন, তিনি আমাদের জাতির পিতা। তার সঙ্গে দেশের স্বাধীনতার অস্তিত্ব জড়িত। মূলত যারা দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না তারাই আমাদের স্বাধীনতার চেতনার উৎস বঙ্গবন্ধুর ম্যূরাল ভাংচুরের মতো ঘৃণ্য কাজ করেছে। জাতির পিতার প্রতি এই অবমাননামূলক ধৃষ্টতার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হোক।

Scroll to Top