জমি দখলে ব্যর্থ হয়ে আমেরিকান প্রবাসীকে মারল দুর্বৃত্তরা

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ চট্টগ্রামের আতুরার ডিপোতে দুর্বৃত্তদের অতর্কিত হামলায় এক আমেরিকান প্রবাসী গুরুতর আহত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বেলা ২টার দিকে মনির আহমেদ মনিরের নেতৃত্বে তার ভাতিজা সন্তান ও ভাগিনারা মিলে দেশিয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আমেরিকান এই প্রবাসীর উপর হামলা করেন।

জানা যায়, ভুক্তভোগী এনামুল হক একজন আমেরিকান প্রবাসী। তিনি বাংলাদেশে থাকাকালীন সময় বাংলাদেশ রেলওয়ে থেকে কিছু জায়গা লিজ নেন। সেখানে নার্সারীসহ তার বেশ কিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তৈরি করেন। মার্চের ১৬ তারিখ তিনি অন এরাবেল ভিসায় ৩০ দিনের জন্য বাংলাদেশে আসলে তার কর্মচারীদের সাথে দেখা করতে যান সেখানে। এসময় আতুরার ডিপু পিয়াঁজু রোডে তার উপর অতর্কিত হামলা চালায় একদল দুর্বৃত্ত।

এনামুল হক বলেন, আমি ১৬ মার্চ আমেরিকা থেকে দেশে আসি। মনির আহমেদ মনির দীর্ঘদিন ধরে আমার জমি দখলের চেষ্টা করে আসছিল। জমি দখলের বিরোধিতা করায়  আমার উপর হামলা চালানো হয়েছে।

এনামুল হকের ছোট ভাই শওকত আলী বলেন, ভাইয়া অনেক বছর পর দেশে আসায়  আমরা নার্সারি দেখতে যাই। সেখানে পরিকল্পিতভাবে হামলা করে আমার ভাই থেকে টাকা, মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। এই হামলার সুষ্ঠু বিচার চাই।

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, ধারালো কিরিচ এবং লাঠি সোটা নিয়ে দুর্বৃত্তরা তার উপর আক্রমণ করেছে। হামলা শেষ করে চলে যাওয়ার সময় আরেক সিসি টিভি ফুটেজে দেখা যায়, মনিরের ভাগিনা ইশান ও মনিরের ছেলে জিমির হাতে প্লাস্টিকের পাইপ। আরেক ছেলে অমির হাতে ও দেশীয় অস্ত্র। এছাড়া মনিরের ভাই জাকির হোসেন, পাঁচলাইশ থানা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলি জনি ও মনির আহমেদের হাতে ছিল ধারালো দেশীয় অস্ত্র। পুরুষদের পাশাপাশি বিশেষ করে জোরালোভাবে হামলা করতে দেখা যায় মনির আহমদ মনিরের বোন মন্জুরা বেগমকে।

উল্লেখ্য, আহত হওয়া আমেরিকান নাগরিক চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোবারক আলীর আপন ভাই। এই হামলায় এনামুল হকসহ তার ছোট ভাই ও কর্মচারীরা গুরুত্বর আহত হয়ে বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

চাটগাঁ নিউজ/এসবিএন

Scroll to Top