জেপি নেতা সালাম বাহাদুর হত্যা: মা-মেয়ে পাঁচদিনের রিমান্ডে

শেয়ার করুন

সিপ্লাস ডেস্ক: রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সামনের সড়ক থেকে জাতীয় পার্টির (জেপি) কেন্দ্রীয় কমিটির অর্থ সম্পাদক সালাম বাহাদুরের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় করা মামলায় গ্রেফতার মা ও মেয়ের পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। তারা হলেন- মা মমতা বেগম ও মেয়ে কামরুন্নাহার চাঁদনী।

বুধবার (১৯ জুলাই) তাদের আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাদের সাত দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শেরেবাংলা নগর থানার সাব-ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) আকতারুজ্জামান। শুনানি শেষে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আতাউল্লাহ তাদের পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) রাজধানী ঢাকা ও মানিকগঞ্জ জেলার সিংগাইর উপজেলার গাজিন্দা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ।

গত ১৫ জুলাই দিবাগত রাত ১২টায় রাজধানীর কলেজ গেট এলাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সামনের সড়ক থেকে সালাম বাহাদুরের (৫২) মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

জানা গেছে, ১৫ জুলাই দিবাগত রাত ১২টার দিকে একটি লাল রঙের প্রাইভেটকার থেকে দুই তরুণ-তরুণী সালাম বাহাদুরের মরদেহ ফেলে দেওয়ার পর উদ্ধার করে মর্গে নেয় পুলিশ। এ ঘটনায় সালাম বাহাদুরের ছোট ভাই আব্দুল করিম খলিফা ১৬ জুলাই শেরেবাংলা নগর থানায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

সালাম বাহাদুর পেশায় ঠিকাদার ছিলেন। ধানমন্ডির ২৭ নম্বর সড়কে তার বাসা। গ্রামের বাড়ি পিরোজপুরের ইন্দুরকানিতে। তিনি জেপির কেন্দ্রীয় কমিটির অর্থ সম্পাদক।

Scroll to Top