চিটাগাং চেম্বার ও কানাডা-বাংলাদেশ চেম্বারের মধ্যে সমঝোতা স্বাক্ষর

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (সিসিসিআই) এবং কানাডা-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (সিবিসিসিআই)-এর মধ্যে আজ একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৮ জুন) চট্টগ্রাম চেম্বার এবং কানাডা-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (সিবিসিসিআই) মধ্যে সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে অনুষ্ঠিত সভায় চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে সিবিসিসিআই’র নির্বাহী সহ-সভাপতি আরিফ রহমান ও কানাডা- ট্রেড এন্ড ইনভেস্টমেন্ট এক্সপো ২০২৩ এর এম্বাসেডর ফেরদৌস আহমেদ বক্তব্য রাখেন।

এ সময় চেম্বার পরিচালক মো. অহীদ সিরাজ চৌধুরী (স্বপন), জহিরুল ইসলাম চৌধুরী (আলমগীর), অঞ্জন শেখর দাশ, বেনজির চৌধুরী নিশান, মো. ওমর ফারুক, মো. ইফতেখার ফয়সাল, এসএম তাহসিন জোনায়েদ, মোহাম্মদ আদনানুল ইসলাম, তানভীর মোস্তফা চৌধুরী, মোহাম্মদ নাসিরুল আলম (ফাহিম) ও  সিবিসিসিআই’র কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, কানাডা-বাংলাদেশ ১৯৭২ সালে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের পর থেকে ঐতিহাসিকভাবে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখেছে। তখন থেকে কানাডা বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন অংশীদার। বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের অন্যতম গন্তব্য হলো কানাডা। আরএমজি ছাড়াও রপ্তানি পণ্যে বৈচিত্র্যকরণে আগামী নভেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য কানাডা-বাংলাদেশ এক্সপো বাংলাদেশী পণ্য ব্র্যান্ডিং এ অন্যতম ভূমিকা পালন করবে।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ভিশন ২০৪১ অনুযায়ী স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে চিটাগাং চেম্বার ব্যবসা-বাণিজ্য স্মার্টকরণ এবং বিনিয়োগ আকর্ষণে কাজ করে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে কানাডিয়ান ও বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের চট্টগ্রামের ভৌগোলিক সুবিধা কাজে লাগিয়ে বিনিয়োগ করার আহবান জানান তিনি।

সিবিসিসিআই’র নির্বাহী সহ-সভাপতি আরিফ রহমান বলেন, আগামী নভেম্বরে কানাডায় অনুষ্ঠিতব্য এক্সপো বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের পণ্য ব্র্যান্ডিং-এর মাধ্যমে সরাসরি কানাডিয়ান উদ্যোক্তা ও সংশ্লিষ্টদের সাথে ব্যবসায়িক যোগাযোগ বাড়াতে সাহায্য করবে। তিনি এ মেলায় অংশগ্রহণের জন্য চিটাগাং চেম্বার ও চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের আমন্ত্রণ জানান।

তিনি আরো জানান, কানাডাসহ উত্তর আমেরিকার দেশভূক্ত অন্যান্য দেশে বাংলাদেশের রপ্তানি বাণিজ্য সম্প্রসারণ, নতুন বাজার তৈরিতে ইতিবাচক প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করবে এই এক্সপো।
কানাডা-বাংলাদেশ এক্সপো ২০২৩ এর এম্বাসেডর ফেরদৌস আহমেদ বলেন, বিদেশে সারাবছরই বাংলাদেশীদের কোন কোন মেলা হয়। কিন্তু এই মেলাটি আর দশটি মেলার মত নয়। বাংলাদেশের রপ্তানি খাতকে সমৃদ্ধ করতে পারে এই মেলা। এছাড়া মেলায় বিজনেস টু বিজনেসসহ বিভিন্ন নেটওয়ার্কিং সেশন অনুষ্ঠিত হবে।  তাই বাংলাদেশী পণ্য ব্র্যান্ডিং করতে এ মেলায় অংশগ্রহণের জন্য আহবান জানান তিনি।

পরে কানাডা-বাংলাদেশ চেম্বারের সাথে চিটাগাং চেম্বারের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। এতে চিটাগাং চেম্বারের পক্ষে সভাপতি মাহবুবুল আলম এবং কানাডা-বাংলাদেশ চেম্বারের পক্ষে আরিফ রহমান স্বাক্ষর করেন।

Scroll to Top