চার্জার কেনো সাদা কালো রঙের হয়

শেয়ার করুন

চাটগাঁ নিউজ ডেস্কঃ ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন বা অন্য যেকোনো ইলেকট্রনিক ডিভাইসই হোক না কেন, ব্যাটারির চার্জ না হলে সমস্ত ফাংশন অবিলম্বে বন্ধ হয়ে যাবে। আমরা যেমন খাবার খেয়ে সুস্থ থাকি যা আমাদের গতিশীলতা এবং জীবনীশক্তি দেয়, ঠিক একইরকম ভাবে ডিভাইসগুলোর জন্যও একই কাজ করে চার্জার। চার্জার ছাড়া যেকোনো ডিভাইসই বোঝা ছাড়া আর কিছু নয়।

প্রসঙ্গটি ল্যাপটপ এবং স্মার্টফোনের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও। আসলে, ল্যাপটপ এবং মোবাইল ফোনগুলো আজকাল বাজারে বিভিন্ন রঙের পাওয়া যায়, যা তাদের বেশ আকর্ষণীয় করে তুলেছে। কিন্তু চার্জারের রঙ সাদা বা কালো কেন? এই রঙ ছাড়া অন্য কোনো রঙের চার্জার কেন দেখা যায় না?

এখন অনেকেই লাল ওয়ানপ্লাস চার্জার নিয়ে কথা বলতে পারেন। তবে সেটার কেবল তারটি লাল এবং চার্জারটি কিন্তু সাদা। তাই প্রশ্ন থেকে যায়। সাদা এবং কালো ছাড়া অন্য রঙে চার্জার আসে না কেন?

প্রকৃতপক্ষে, প্রতিটি রঙের একটি ভিন্ন তাপ পরিবাহিতা আছে। এর মানে হলো যে, প্রতিটি রঙ বিভিন্ন পরিমাণে তাপ শোষণ করে। এর মধ্যে কালো রঙ সবচেয়ে বেশি তাপ শোষণ করতে পারে। এই কারণে, চার্জার বেশিরভাগ কালো হয়। এর মধ্য বিদ্যুৎ দিয়ে যায়, তাই এটি সামান্য গরম হয়। যদি এটি খুব গরম হয়ে যায়, তাহলে এটি পুড়ে যেতে পারে এবং ডিভাইসের ক্ষতি হতে পারে। কালো রঙের চার্জারে ভয় নেই, তাই চার্জারটি প্রধানত কালো হয়। অন্যান্য রঙ সহজেই উত্তপ্ত হয়।

এখানে আর্থিক দিকও আছে। কালো চার্জারগুলোর কাঁচামালের খরচ অন্যান্য রঙের তুলনায় উল্লেখযোগ্যভাবে কম। ফলে এটি কোম্পানিগুলোর জন্য খুবই সাশ্রয়ী।

ভিভো, অপো, ওয়ানপ্লাস, রেডমি ও রিয়েলমি-র মতো কোম্পানিগুলো বর্তমানে সাদা রঙের চার্জার অফার করছে। আর যখন অ্যাপলের কথা ওঠে আসে, তারা সবসময় সাদা চার্জার অফার করে এবং এখনও প্রযুক্তির বিশ্বে সেরার তকমা তাদেরই হাতে।

চাটগাঁ নিউজ/এসবিএন

Scroll to Top