গ্যাস সংকট কবে কাটবে, জানালেন প্রতিমন্ত্রী

শেয়ার করুন

চাটগাঁ নিউজ ডেস্ক: আগামী দুয়েক দিনের মধ্যেই ঢাকা ও চট্টগ্রামের গ্যাস সংকট কেটে যাবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

রোববার (২১ জানুয়ারি) মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, শীত মৌসুম এবং অবৈধ গ্যাসের লাইনের কারণেই গ্যাসের বেশি সংকট দেখা দিয়েছে। শিগগিরই ঢাকা ও চট্টগ্রামের গ্যাস সংকট কেটে যাবে। সবাইকে ধৈর্য ধরতে হবে।

আগামী দুই বছরের মধ্যে দেশের সকল গ্রাহককেই প্রিপেইড গ্যাস মিটার আওতায় আনা হবে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এরপর থেকেই নিরবিচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহ করা সম্ভব হবে।

নসরুল হামিদ বলেন, বাসা বাড়িতে এখন এলপিজি গ্যাস সরবরাহের তাগিদ দেয়া হচ্ছে। এলপিজি গ্যাসের দামও অনেকটা কমে গেছে তুলনামূলকভাবে। শিল্পকল কারখানায় পাইপ লাইনের মাধ্যমে গ্যাস দেয়ার গুরুত্ব বেশি থাকবে। বাসা বাড়িতে এলপিজি গ্যাস দেয়ার লক্ষ্যকে বেশি গুরুত্ব দেয়া হবে।

গ্যাসের দাম বাড়বে এমন গুজবে কান না দিতে আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এখন থেকে নিজস্ব গ্যাস আহরণে আশাবাদী সরকার। বাসা বাড়ির গ্যাসের দাম সমন্বয় করা হবে না। গ্যাসের দাম বাড়বে বলে গুজবে কান না দেয়াই ভালো।

এর আগে শনিবার (২০ জানুয়ারি) এক ফেসবুক পোস্টে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় জানিয়েছিল, মহেশখালীতে টার্মিনালের কারিগরি ত্রুটির কারণে এলএনজি সরবরাহে বিঘ্ন ঘটায় গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদনে ব্যাঘাত ঘটছে। এতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে লোডশেডিং হতে পারে।

মন্ত্রণালয়ের উপপ্রধান তথ্য কর্মকর্তা মীর মোহাম্মদ আসলাম উদ্দিন জানান, মহেশখালীতে টার্মিনালে কারিগরি ত্রুটিতে এলএনজি সরবরাহে বিঘ্ন ঘটছে। এতে সাময়িকভাবে গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কম হচ্ছে। এতে দেশের কিছু অঞ্চলে হয়তো লোডশেডিং হতে পারে।

সমস্যা সমাধানে মন্ত্রণালয় কাজ করছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, এটি সাময়িক সমস্যা। যা দ্রুত কেটে যাবে। গ্রাহকদের অনাকাঙ্ক্ষিত অসুবিধার জন্য মন্ত্রণালয় আন্তরিকভাবে দু:খ প্রকাশ করছে।

চাটগাঁ নিউজ/এমআর

Scroll to Top